banglanewspaper

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় কয়েল ফ্যাক্টরির এক নারী শ্রমিককে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় ওই নারীর সঙ্গে থাকা তার বন্ধুকে মারধর করে টাকা ও মোবাইল নিয়ে যায় বখাটেরা।

সোমবার রাত ৮টার দিকে ফতুল্লার বটতলা এলাকায় শাহাজালাল রোলিং মিল সংলগ্ন মসজিদ গলিতে এ ঘটনা ঘটে।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ রাতেই ঘটনায় জড়িত অভিযোগে রাসেল, আলামীন, রবিন, সুমন ও রুবেল নামের পাঁচ যুবককে আটক করে।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন গণমাধ্যমকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ওই তরুণীর বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফল থানায়। তিনি নারায়ণগঞ্জের একটি কয়েল ফ্যাক্টরিতে চাকরি করেন।

ওসি জানান, সোমবার রাত ৮টার দিকে কারখানায় কাজ শেষে ছুটির পর মালিকের সঙ্গে বাড়ি ফেরার পথে তাদের পথরোধ করে এলাকার বখাটে যুবক রাসেলসহ তার আরেও ৪-৫ যুবক। 

পরে সন্ত্রাসী আলামীন কয়েল কারখানার মালিককে মারধর করে সেখান থেকে তাড়িয়ে দিয়ে ওই নারী শ্রমিককে রবিন ও সুমনের হাতে টাকার বিনিময়ে তুলে দেয়। এরপর ৪-৫ জন মিলে ওই তরুণীকে একটি নির্জন বাড়িতে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

ট্যাগ: bdnewshour24 বন্ধু ণধর্ষণ