banglanewspaper

বিভিন্ন জঙ্গি আস্তানা থেকে গ্রেফতার হওয়া জঙ্গিরা কারাগারে আছে। কারাগারে তাদের ডি-রেডিকালাইজড করা যাচ্ছে না। তাদের সুপথে ফেরানোর জন্য অনেক কাজ করার আছে বলে মনে করেন পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. জাবেদ পাটোয়ারি।

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) ২ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় ‘উগ্রবাদবিরোধী জাতীয় সম্মেলন-২০১৯’ এর সমাপনী বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

আইজিপি বলেন, যারা জঙ্গিবাদের অভিযোগে কারাগারে যাচ্ছে এবং মুক্ত হয়ে ফিরে আসছে তাদের পুনর্বাসন একটি পরিকল্পনা করতে হবে আমাদের।

তারা আমাদেরই সমাজের সন্তান। তাদের মূল সমাজে ফিরিয়ে আনার প্রচেষ্টা থাকতে হবে। আমরা ইতোমধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন মসজিদগুলোর ইমামদেরকে মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রচার করতে বলেছি। এর ফলে যাদের জঙ্গিবাদের দিকে ঝুঁকে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে, তারা ধর্মের সুষ্ঠু ব্যাখ্যা পেয়ে আর এ পথে যাবেন না।

আমি মনে করি, তাদের নিয়ে এনজিওরা অনেক কাজ করতে পারে।

আইজিপি বলেন, ২০১৬ সালের পরে আমাদের দেশে বেশ কিছু অভিযান হয়েছে। আমরা জঙ্গিদের এনকাউন্টার করেছি, ধ্বংস করেছি বলেই এখন এর সুফল ভোগ করছি। কিন্তু বাইরে থেকে আমরা উগ্রবাদীদের চিহ্নিত করি, মামলা দেই, গ্রেফতার করে জেলে ঢুকাই। কিন্তু সেখানে গিয়ে তাদের সংশোধন হচ্ছে না।

তিনি বলেন, উগ্রবাদের মতো ধ্বংসাত্মক একটি বিষয় মোকাবিলা করার জন্য শুধু আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর একার পক্ষে সম্ভব না। সমন্বিত প্রয়াসই উগ্রবাদিতা মোকাবিলা করতে পারে।

ট্যাগ: bdnewshour24 আইজিপি