banglanewspaper

আত্রাই(নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে উপজেলা প্রশাসন  ও মহিলা বিষয়ক অফিসের আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে “জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা  অনুষ্ঠানে অনৈতিক ভাবে সাফল্য অর্জনের জন্য শিক্ষা ও চাকুরীর ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনের জন্য সফল জননী হিসাবে সাফল্য অর্জনের জন্য/ নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন পরিচালনার জন্য/ সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখার জন্য শ্রেষ্ঠ জয়িতার সম্মাননা স্বরুপ নন্দ সরকার ও মোছা: নাসিমা বিবিকে জয়িতা সম্মাননা প্রদান করা হয়। 

তাদের অনুভূতি জানতে চাইলে  জয়িতা নন্দ সরকার বলেন, আমার স্বামী বীর মুক্তিযোদ্ধা অরুন সরকার ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে সর্বহারা কর্তৃক জবাই হয়। তখন মেয়ে নমিতা সরকার(১০), নিপা সরকার(০৭) ছেলে তাপস সরকার(০৫)  তাদের নিয়ে অত্যন্ত দুঃখ কষ্টে দিনাতিপাত করি। প্রথম মিয়েকে বিএ পাস, দ্বিতীয় মিয়েকে এসএসসি পাস করায়ে বিয়ে দিই। ছেলে রাজশাহী ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ব বিদ্যালয় হতে পড়ালেখা শেষ করে ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণীর মর্যাদায় চাকুরী করছে। বর্তমানে সকল প্রতিকুলতা কাটিয়ে আমি সুখে দিন যাপন করছি।

জয়িতা মোছা: নাছিমা বলেন, অভাবের সংসারে চার কন্যা সন্তানকে নিয়ে কৃষক স্বামীর পক্ষে ভরণ পোষণ ও মেয়েদের পড়ালেখার খরচ চালানো অসম্ভব হয়ে পরে। কাহার কাছে হাত না বাড়িয়ে কাগজ দ্বারা ফুল তৈরীর প্রশিক্ষন নিয়ে কাজ শুরু করি। সেখান হতে বর্তমানে মাসে ২০-২৫ হাজার টাকা আয় করি। তাছারা গ্রামের কিছু মহিলাকে প্রশিক্ষন দিয়ে আমার সাথে তাদের রেখেছি। তারাও ১০-১২ হাজার টাকা আয় করে তাদের স্বামীকে সহায়তা করে। বর্তমানে আমরা সুখে শান্তিতে জীবন যাপন করছি।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার মো. মোয়াজ্জেম হোসেন কোন কাজকে ছোট না ভেবে অন্যের কাছে হাত না বাড়িয়ে কষ্টকে জয় করে সামনে এগিয়ে চলার জন্য নন্দ সরকার ও নাছিমা বিবিকে ধন্যবাদ জানান। 

ট্যাগ: bdnewshour24 আত্রাই