banglanewspaper

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের নাতি প্রিন্স হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগান মার্কেল ‘সিনিয়র রয়্যাল’ উপাধি গ্রহণ করবেন না বরং তারা স্বাবলম্বী হয়ে বেঁচে থাকতে চান বলে জানিয়েছেন। তবে হ্যারি ও মেগানের পদ ছাড়ার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রানি।

এক বিবৃতিতে প্রিন্স হ্যারি এবং মেগান বলেছিলেন যে, তারা যুক্তরাজ্য এবং উত্তর আমেরিকার মধ্যে তাদের সময় বিভক্ত করার পরিকল্পনা করছেন। অর্থাৎ তারা আর যুক্তরাজ্যে থাকতে চাচ্ছেন না।

হ্যারি এবং মেগান বুধবার রাতে তাদের রাজকীয় ক্যারিয়ারে ‘পারমাণবিক বোতামটি চাপলেন’ এই ঘোষণা দিয়ে যে তারা তাদের আগামীদিনের ভূমিকা পালন করতে পারছেন না।

এই বিবৃতি দেয়ার আগে রানি বা প্রিন্স উইলিয়ামসহ রাজ পরিবারের কারও পরামর্শ নেয়া হয়নি এবং এ ঘটনায় বাকিংহাম প্যালেস হতাশ।

বুধবার তাদের অপ্রত্যাশিত বিবৃতি, তাদের ইনস্টাগ্রাম পেজেও এই দম্পতি বলেছিলেন যে, তারা অনেক আলোচনার পরই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তারা বিবৃতিতে বলেন, আমরা রয়্যাল ফ্যামিলির সিনিয়র সদস্য হিসেবে পদত্যাগ করার এবং মহামান্য রানিকে সমর্থন অব্যাহত রেখে আর্থিকভাবে স্বতন্ত্র হওয়ার জন্য কাজ করার পরিকল্পনা নিয়েছি।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১৯ মে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের নাতি প্রিন্স হ্যারি ও মার্কিন টিভি সিরিয়াল ‘স্যুইটস’ এর অভিনেত্রী মেগান মার্কেল। ৩৩ বছর বয়সী প্রিন্স হ্যারির চেয়ে তিন বছরের বড় মেগান মার্কেল।

ট্যাগ: bdnewshour24 রাজ পরিবার