banglanewspaper

গৃহবন্দি দশা থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ।

তাকে গৃহবন্দি হিসেবেই অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানায়, আগামী সপ্তাহে ওমর আবদুল্লাহকে শ্রীনগরের সরকারি বাংলোর কাছেই কোনো স্থানে গৃহবন্দি করে রাখবে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার।

গত পাঁচ মাস ধরে হাঁড়ি নিবাসে নিজের বাবা কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লাহর সঙ্গে গৃহবন্দি হয়েছিলেন ওমর।

শুধু ফারুক ও ওমর আবদুল্লাহই নন; কাশ্মীরের আরেক সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিকে গৃহবন্দি করে রেখেছে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার।

এ ছাড়া মায়ের সঙ্গে ইলতিজা মুফতিকেও গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এনডিটিভিসহ অন্যান্য ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, মেহবুবা মুফতিকে যে বাংলোতে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে, সেখান থেকে কঠোর নিরাপত্তাবেষ্টনী সরানো হয়েছে।

তবে সেখানে সাংবাদিকরা প্রবেশ করতে না পারলেও স্থানীয়রা সে পথ ব্যবহার করে যাতায়াত করতে পারছেন।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা ভারতের সংবিধান থেকে বাতিলের পর ওই অঞ্চলটিতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ওই আইন বহালের দাবিতে কাশ্মীরের লাখে লাখো জনতা রাস্তায় নেমে আসেন।

সেই উত্তেজনাময় পরিস্থিতিতে রাজ্যের তিন সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ, ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতিসহ উপত্যকাটির শতাধিক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে আটক করেছিল রাজ্য পুলিশ।

এর পর থেকেই এই তিন কাশ্মীরি নেতাদের সব কার্যক্রম সীমিত করে দিয়েছে ভারত সরকার।

সে সময় এক টুইটে মেহবুবা মুফতি লিখেছিলেন, আমাদের মতো নির্বাচিত প্রতিনিধিরা যারা শান্তির জন্য লড়াই করছি, তারা আজ গৃহবন্দি। বিশ্ব দেখছে, জম্মু ও কাশ্মীরে কীভাবে মানুষের কণ্ঠ রুদ্ধ করে দেয়া হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 কাশ্মীর