banglanewspaper

অবশেষে হদিশ মিলল টিকটক খ্যাত নিখোঁজ বধূর। ভিডিও কলে জানালেন স্বামীর বাড়ির লোকজনের অত্যাচারে বন্ধুর সাথে ঘর ছেড়ে দিল্লিতে বাড়িতে গিয়ে উঠেছেন তিনি। স্ত্রীর এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই জানিয়েছেন তার স্বামী।

টিকটক ভিডিও করে দিন দিন বাড়ছিল তার ফলোয়ারের সংখ্যা। বাড়ছিল পরিচিতিও। সেই পরিচিতির জন্যই দিল্লিতে ব়্যাম্প শোয়ে অংশ নেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন টিকটকে জাসমিন নামে পরিচিত ওই গৃহবধূ। 

জানা গেছে, সারাদিনই টিকটক ভিডিওতে ব্যস্ত থাকতেন ভারতের চুঁচুড়া ভগবতীডাঙায় এলাকার বাসিন্দা প্রসেনজিৎ মন্ডলের স্ত্রী প্রতিমা মন্ডল, তাদের একটি পাঁচ বছরের মেয়েও রয়েছে। তার প্রোফাইলের নাম ছিল জাসমিন। মাত্র ৯ মাসেই ৪ লাখ ২৮ হাজার ফলোয়ার জাসমিনের।

গত ৩১ ডিসেম্বর চুঁচুড়ার ভগবতীডাঙার বাসিন্দা ওই গৃহবধূ দিল্লিতে সেই অনুষ্ঠানে অংশ নিতেই রওনা দিয়েছিলেন। এরপরই তার সঙ্গে পরিবারের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বহুবার যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে গৃহবধূর স্বামী চুঁচুড়া থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন।

বিশেষ সূত্রে জানা যায়, জাসমিন নামে ওই তরুণী নিয়মিত ফোনে তার মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন। তা সত্ত্বেও কেন তার স্বামী নিখোঁজ ডায়েরি করলেন তা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। এই পরিস্থিতিতেই প্রকাশ্যে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য।

ভিডিও কলে ওই তরুণী জানালেন, দিল্লিতে এক বন্ধুর বাড়িতে রয়েছেন তিনি। ওই বধূর অভিযোগ, স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন প্রতিনিয়ত অত্যাচার করত তার উপর। যেদিন তিনি দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেন সেদিও তাকে বাধা দেওয়া হয়, হেনস্তা করা হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। যদিও গৃহবধূর অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই জানালেন তার স্বামী। 

তার কথায়, ‘যদি অত্যাচার করা হতো তাহলে হন্যে হয়ে স্ত্রীকে খুঁজতাম না।’ পাশপাশি, শাশুড়িকেও কাঠগড়ায় তুলেছেন তিনি। অভিযোগ, ওই গৃহবধূর মা সব জানতেন সেই কারণেই মিসিং ডায়েরি করার সময় তাকে সহযোগিতা করার পরিবর্তে গোটা বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন। যদিও গৃহবধূর অভিযোগের সতত্যা নিয়েও প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

কারণ, স্থানীয়দের অভিযোগ এর আগেও একাধিকবার স্বামী সন্তানকে রেখে ঘর ছেড়েছিলেন ওই গৃহবধূ। তবে কারণ যাই হোক, স্ত্রী সুস্থ ও সুরক্ষিত রয়েছেন তা জেনেই কিছুটা স্বস্তিতে স্বামী।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

ট্যাগ: bdnewshour24 টিকটক ফাঁদ বন্ধু গৃহবধূ