banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে বাল্য বিয়ে পড়ানোর সময় এক কাজীকে ৬মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। ১৭ জানুয়ারি শুক্রবার দুপুরে উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের কর্ণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সাজাপ্রাপ্ত কাজী আবুল বাশার (৫০) একই গ্রামের আবদুল হামিদের ছেলে। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এম.ডি শামসুল আরিফীন ভ্রাম্যমাণ আদালতটি পরিচালনা করে ওই দণ্ডাদেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার দুপুরে কর্ণপুর গ্রামে একটি বাল্যবিবাহ হচ্ছে এমন খবরে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ আসার টের পেয়ে  আবুল বাশার, বর ও কনেপক্ষের সবাই দৌড়ে পালিয়ে যান। এ সময় পুলিশ ধাওয়া দিয়ে বাশারকে আটক করে।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাঁকে হাজির করা হলে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। বর ও কনেপক্ষের সবাই পালিয়ে যাওয়ায় তাঁদের কাউকে আইনের আওতায় আনা যায়নি।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক এম.ডি শামসুল আরিফীন জানান, বিয়ে পড়ানোর জন্য আবুল বাশারের নিজের কোনো লাইসেন্স নেই। তিনি গোসিংগা ইউনিয়নের কাজী সাদেক মিয়ার নিকাহ রেজিস্ট্রার বই নিয়ে বিয়ে পড়িয়ে থাকেন।

জন্মসনদ না দেখেই বাল্যবিবাহ পড়িয়ে কেবল বর ও কনের স্বাক্ষর রেখে দিতো ওই কাজী়। প্রয়োজন অনুযায়ী তথ্য বসিয়ে দিয়ে পরে বর-কনেকে কাবিননামা দেওয়ার বিপরীতে টাকা দাবি করতো আবুল বাশার।

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর বিয়ে