banglanewspaper

দেশে বর্তমানে ১০ দশমিক ৬৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট উত্তোলনযোগ্য গ্যাসের মজুত রয়েছে জানিয়ে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, ‘মজুত এই গ্যাস চলবে আর মাত্র ১১ বছর।’ সোমবার জাতীয় সংসদে সরকারি দলের এম আবদুল লতিফের এক প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে বর্তমানে (১ জানুয়ারি ২০২০) ১০ দশমিক ৬৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট উত্তোলনযোগ্য গ্যাসের মজুত রয়েছে। বর্তমানে দৈনিক দুই হাজার ৫৭০ মিলিয়ন ঘনফুট হারে গ্যাস উৎপাদন হচ্ছে। এ হারে উৎপাদন অব্যাহত থাকলে মজুত গ্যাস ১১ বছর ব্যবহার করা যাবে।’

চাহিদার তুলনায় বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা বেশি হওয়ায় কোথাও বিদ্যুৎ ঘাটতি পরিলক্ষিত হচ্ছে না বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

তবে এ সমস্যা সমাধানে কাজ করা হচ্ছে জানিয়ে নসরুল হামিদ বলেন, ‘সঞ্চালন ও বিতরণ নেটওয়ার্কের সীমাবদ্ধতার কারণে মাঝেমধ্যে বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটে। তবে বিদ্যুতের বিভ্রাট, লো-ভোল্টেজ, উৎপাদনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে গ্রাহকসংখ্যা বৃদ্ধি, বিতরণ ও সঞ্চালন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।’

‘পিক-অফপিক আওয়ার বিদ্যুতের লোডের তারতম্য কমানোর বিষয়ে কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এসব কার্যক্রম বাস্তবায়ন হলে বিদ্যুৎ বিভ্রাট ও ভোল্টেজ তারতম্যজনিত সমস্যা দূর করা সম্ভব হবে এবং গুণগতমানের নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সম্ভব হবে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 গ্যাস