banglanewspaper

সিলেটে গর্ত ধসে আবারও পাথরশ্রমিক নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। 

আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একটি গর্ত থেকে পাথর তোলার সময়  সেখানে ধসের ঘটনা ঘটে। এতে ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েন কয়েকজন শ্রমিক। গর্ত থেকে রুবেল মিয়া (২৫) নামের এক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত চারজন শ্রমিক।

রুবেলের বাড়ি নেত্রকোনার খালিয়াজুরী। তাঁর বাবার নাম মো. ফরিদ। লাশটি কোম্পানীগঞ্জ থানা-পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

গভীর গর্ত করে যন্ত্র দিয়ে যত্রতত্র পাথর উত্তোলন করতে গিয়ে একের পর এক শ্রমিক নিহতের ঘটনাস্থল হিসেবে পরিচিতি শাহ আরেফিন টিলা। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার যাতায়াত বিড়ম্বিত এলাকা সীমান্তবর্তী পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়নে টিলাটির অবস্থান। ২০১৭ সালের ২৩ জানুয়ারি গর্ত ধসে প্রথম শ্রমিক হতাহতের ঘটনা ঘটেছিল। ওই দিন একসঙ্গে ছয়জন শ্রমিক নিহত হয়েছিলেন। 

এর পর থেকে ওই এলাকায় শুধু জানুয়ারি মাসেই শ্রমিক হতাহতের ঘটনা বেশি ঘটছে। উপজেলা প্রশাসনের পরিসংখ্যান ও গত তিন বছরের পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, ২০১৭ সাল থেকে গত তিন বছর জানুয়ারি মাসেই ১২ জন পাথরশ্রমিক নিহত হয়েছেন শাহ আরেফিন টিলায়।

চরতি বছরের ২০ জানুয়ারি একজন শ্রমিক নিহত এবং গত ২৩ জানুয়ারি দুই শ্রমিক আহত হওয়ার পর গত বৃহস্পতিবার তানভির হোসেন (২৭) নামের একজন পাথরশ্রমিক নিহত হয়েছিলেন। তিন দিনের মাথায় আজ রোববার আবারও গর্ত ধসের ঘটনায় নিহত মানুষের সংখ্যা দাঁড়াল ১৪ জনে।

ট্যাগ: bdnewshour24 সিলেট টিলা ধস লাশ