banglanewspaper

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচিত মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপসের ছেড়ে দেয়া ঢাকা-১০ আসনের দিকে এবার সবার নজর। ভিআইপি এই আসনের উপনির্বাচনে এবার কে পাচ্ছেন ক্ষমতাসীন দলটির মনোনয়ন? বঙ্গবন্ধু পরিববার, তাপসের পরিবার নাকি পরিবারের বাইরের কেউ সংসদের এ আসনের টিকিট পাচ্ছেন তা নিয়ে চলছে আলোচনা।

ডিএসসিসি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত হয়ে তাপস ঢাকা-১০ আসনটি ছেড়ে দিয়েছিলেন। নিয়মানুযায়ী এ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে। রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ এ আসনে উপনির্বাচন হবে শিগগিরই। এতে ক্ষমতাসীন দল থেকে মনোনয়ন পেতে দলের বেশ কয়েকজন ‘হেভিওয়েট প্রার্থী’ আলোচনায় রয়েছেন। শেষ পর্যন্ত কে হবেন এই আসনের ক্ষমতাসীন দলের মনোনীত প্রার্থী সেটি নির্ভর করছে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর।

সূত্রমতে, ঢাকা-১০ আসনে টানা তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির ছেলে ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস। এর আগে এই আসনটি বিএনপির দখলে ছিল। তাপস এমপি হওয়ার পর এই আসনটি আওয়ামী লীগের দুর্গে পরিণত হয়। তিনি এবার আসনটি ছেড়ে দেয়ায় কার ভাগ্যে এ আসনটি পড়বে তার জবাব আর কয়েকদিনের মধ্যেই মিলবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের কয়েক নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের নেতা।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, বঙ্গবন্ধুর পরিবার ও তাপসের পরিবারের মধ্যে আলোচনায় আছেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নবাগত মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপসের বড়ভাই যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। ২৩ নভেম্বর যুবলীগ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আনুষ্ঠানিক রাজনীতি থেকে ‘অনেকটাই দূরে’ থাকা পরশ।

কেন্দ্রীয় কয়েক নেতার ক্যাসিনোকাণ্ডে ‘ক্ষত-বিক্ষত-বিপর্যস্ত’ যুবলীগের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করতে সংগঠনটির শীর্ষ নেতৃত্বে নির্বাচিত হওয়ার পরই অ্যাকামেডিশিয়ান পরশ রাজনীতির পাদপ্রদীপের আলোয় উদ্ভাসিত হন। সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনির বড় ছেলে শেখ পরশ ক্লিন ইমেজের। যুবলীগের নেতৃত্বে আসায় তার প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থা রয়েছে তা স্পষ্ট বোঝা যায়।

এ ছাড়া এ আসনে প্রার্থী হতে পারেন বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি। বিদেশে লেখাপড়া করা বঙ্গবন্ধুর এই দৌহিত্র আওয়ামী লীগের গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিআরআইয়ে সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

এ ছাড়া প্রার্থী হিসেবে জোরালো সম্ভাবনা আছে তাপসের সহধর্মিণী আফরিন তাপসের। বিগত নির্বাচনে তিনি তাপসের পক্ষে মাঠে নেমেছিলেন। স্বামীর পক্ষে নৌকায় ভোট চেয়েছেন। ফলে ধানমণ্ডি, কলাবাগান, হাজারীবাগ ও নিউমার্কেট এলাকার প্রতিটি ভোটার তাকে চেনেন ও জানেন।

বঙ্গবন্ধু পরিবারের বাহিরে অনেকে আলোচনায় রয়েছেন। তার মধ্যে পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতি-বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী মুর্শেদ হোসেন কামাল।

ঢাকা-১০ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন। আরপিও অনুযায়ী কোনো আসন শূন্য ঘোষণার ৯০ দিনের মধ্যে ওই আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ট্যাগ: bdnewshour24 তাপস নির্বাচন আওয়ামী লীগ ঢাকা-১০ আসন