banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে নিরীহ মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে     শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম-২ এর বিরুদ্ধে। সবশেষ অটোরিক্সা চালক সুজনের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার পর এলাকাবাসী তার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছেন। 

১১ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সোমবার বিকেলে শ্রীপুর পৌর এলাকার কেওয়া বাজার (দক্ষিন পাড়া) গ্রামের শতাধিক নারী-পুরুষ ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিচার দাবীতে বিক্ষোভ করেছেন। 

মাদক মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানো অটোরিক্সা চালক সুজন ওই গ্রামের মৃত কাদিরের ছেলে।

সুজনের স্ত্রী পোশাক শ্রমিক হাসনা আক্তারের দাবী, বেশ কিছুদিন ধরে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম-২ প্রায় রাতেই তাদের বাড়ীতে এসে "ঘরে মাদক রাখিস" বলে শাসিয়ে যায়। একরাতে ঘরে কোন মাদকই না পেলেও মিথ্যা মামলার ভয় দেখিয়ে ১২ হাজার টাকা দিতে বলে। পরে মামলার ভয়ে আমরা টাকা দিয়ে দেই। ৯ ফেব্রুয়ারী (রোববার) রাতে আবারো এসআই রফিকুল ইসলাম-২ সহ এক দল পুলিশ ও তার সোর্স নিয়ে মাদকের থাকার কথা বলে টাকা চায়। টাকা না দেয়ায় সুজনকে আটক করে নিয়ে যেতে চায়। এলাকাবাসীর বাধা দিলে পুলিশের সাথে হাতা-হাতি হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ আমাকে ( সুজনের স্ত্রী হাসনাকে)  তাদের হাতে থাকা বন্ধুক দিয়া আঘাত করলে আমি রক্তাক্ত জখম হই। পরে পুলিশ সুজনকে থানায় নিয়ে তার ভাই সুমন, মা হামিদা খাতুন ও এলাকার সাইফুল ইসলামের নামে ২০পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ দেখিয়ে মিথ্যা মাদক মামলা দায়ের করে। সুজন বর্তমানে জেল হাজতে থাকলেও অন্যান্য আসামীরা পুলিশে ভয়ে এলাকা ছাড়া রয়েছে।

একই এলাকার সাইফুলের মা শাহনাজ জানান, টাকা না দেয়ায় রফিক দারোগা আমার ছেলের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। ওর অত্যাচারে আমরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছি। 

বিক্ষোভে আসা স্থানীয়দের দাবী,  গত কয়েকদিন আগে এসআই রফিকুল ইসলাম-২ ওই এলাকার প্রতিবন্ধী আসাদুল্লাহকে মারধর করে তার ছেলে ফরিদকে মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে নগদ ২৫ হাজার টাকা, আব্দুল হামিদের ছেলে মজিবুর রহমানের কাছ থেকে ২৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

এ বিষয় বক্তব্য নিতে 
অভিযুক্ত শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম-২-এর মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। 

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডিশনাল এসপি) জহিরুল ইসলাম জানান, কোন নিরিহ মানুষের কাছ থেকে  মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়ার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। তদন্ত করে অভিযোগ প্রমাণীত হলে ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান তিনি। 

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর টাকা আতংক এসআই