banglanewspaper

সর্বশেষ ছয় টেস্টে টানা হার। পাঁচটিতে ইনিংস ব্যবধানে হার। চলতি বছরের শুরুটাও লজ্জার ইনিংস হারেই হয়েছে। রাওয়ালপিন্ডিতে পাকিস্তানের কাছে ইনিংস ও ৪৪ রানে হেরেছে মুমিনুল হকের দল। ব্যর্থতার এই বৃত্ত থেকে ঘুরে দাঁড়ানো এখন বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।

টানা হারের এই দুঃসময় কাটিয়ে ওঠার সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ দল। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে টেস্ট খেলতে নামবে মুমিনুল বাহিনী। পূর্ণাঙ্গ সফরে গতকালই ঢাকায় এসে পৌঁছেছে জিম্বাবুয়ে।

জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও অনুভব করছেন, টেস্টে এমন বিধ্বস্ত পরিস্থিতি কাম্য নয়। এভাবে চলতে পারে না। গতকাল ঐচ্ছিক অনুশীলনে এসে জাতীয় দলের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুন বলেছেন, টেস্টে দলের পারফরম্যান্স নিয়ে সবাই চিন্তিত। এই ফরম্যাটে ঘুরে দাঁড়াতে দলের সবাইকে সুনির্দিষ্ট ভূমিকা দিচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্ট। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই জয়ের স্বস্তি পেতে মরিয়া বাংলাদেশ।

পাকিস্তান থেকে ফিরে টেস্ট দলের বেশির ভাগ ক্রিকেটারই বিসিএলের তৃতীয় রাউন্ডে খেলছেন না। মিরপুরে গতকাল তামিম ইকবাল, মুমিনুল, মিঠুন, আল-আমিনরা অনুশীলন করেছেন। তাদের অনুশীলন তত্ত্বাবধান করেছেন হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও বোলিং কোচ ওটিস গিবসন। সঙ্গে স্থানীয় কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনও ছিলেন তামিম-মুমিনুলদের নেট সেশনে।

রাওয়ালপিন্ডিতে হারের পর দলের সবাইকে নিয়ে মিটিং করেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। সেখানেই সবার ভূমিকা ঠিক করে দেওয়া হয়েছে। মিঠুন জানালেন, ‘আমাদের সবাইকে সুনির্দিষ্ট ভূমিকা দেওয়া হচ্ছে। আমরা সবাই চেষ্টা করব যে আমরা যেন আমাদের ভূমিকা ঠিকমতো পালন করতে পারি। আমরা সবাই যার যার ভূমিকা পালন করলে দল যে ফলাফল করছে সেটা আরো ভালো হবে।’

একটা জয় দলের পরিবেশ পরিবর্তন করে দিতে পারে। আত্মবিশ্বাস ফেরাতে পারে ড্রেসিংরুমে। হোম ভেন্যুতে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে টেস্টকেই পাখির চোখ করছে বাংলাদেশ। গতকাল মিঠুন বলেছেন, ‘প্রতিটা জয়ই দলের চেহারা পরিবর্তন করে। সেটা জিম্বাবুয়ে হোক বা অস্ট্রেলিয়া হোক। আমাদের যেহেতু ভালো সময় যাচ্ছে না, আমরা যদি জিম্বাবুয়ের সঙ্গেও ভালো পারফরম করতে পারি বা দল হিসেবে আমরা যদি ম্যাচ জিততে পারি। তাহলে অবশ্যই আমাদের যে খারাপ সময় যাচ্ছে, সেটা থেকে সবাই আত্মবিশ্বাসী হবে। তখন আমরা অনেক ভালো দলের সঙ্গেও ম্যাচের ফলাফল ভালো করার সুযোগ থাকবে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 পারফরম্যান্স চিন্তিত ক্রিকেটার