banglanewspaper

মালয়েশিয়া পুনরায় বাংলাদেশের শ্রমবাজার খোলার আশ্বাস দিয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেন, দুই বছর ধরে মালয়েশিয়ায় রিক্রুমেন্ট বন্ধ করে দেওয়ায় আমি দুঃখ প্রকাশ করেছি। আমি এই লেবারমার্কেট খুলে দেওয়ার জন্য পুনরায় আবেদন জানিয়েছি। এর জবাবে, তিনি খুব তাড়াতাড়িও একটা সিদ্ধান্ত দিবেন বলে জানিয়েছেন।

রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী এম কুলাসেগারান পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেনের সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানিয়েছেন মন্ত্রী।  

তিনি বলেন, এখানে আমাদের কিছু দুর্বলতা আছে, যখন শ্রমবাজার ওপেন করা হয় সবাই অবৈধভাবে যাওয়ার সুযোগ খোঁজে, যেটা তারা পছন্দ করে না। এটা নিয়ে আমাদের প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রণালয় কাজ করছে।

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, স্বয়ং মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহথির মোহাম্মদ বাংলাদেশকে সাপোর্ট দিয়েছেন। এমনকি তারা এ ব্যাপারে আমাদের আরও সাহায্য করবেন। মালয়েশিয়া প্রথম থেকেই রোহিঙ্গা বিষয়ে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করেছে।

এ কে আবদুল মোমেন বলেন,  বাংলাদেশ অর্থনীতিতে ভালো করছে, এশিয়া এস্পেসেফিক রিজনের মধ্যে আমাদের হায়েস্ট জিডিপি গ্রোথ রেট, এখানে যা প্রডিউস হয় তার মার্কেট আছে। সাউথ এশিয়ার মধ্য আমাদের ইনভেস্টমেন্ট রেট হায়েস্ট। মালয়েশিয়া আমাদের আমদানি কম করে, এজন্য আমি তাদেরকে বেশি আমাদানি করতে বলেছি। মালয়েশিয়া এখানে ইনভেস্ট করতে পারে, এখানে উভয়ের লাভ হবে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের অনেক মানুষ মালয়েশিয়ায় কাজ করছে, মালয়েশিয়ার মানুষ বাংলাদেশিদের হার্ডওয়ার্কিং বলে প্রশংসা করে। মালয়েশিয়া বিনিয়োগে আগ্রহী বাংলাদেশে। দেশের বিভিন্ন পণ্য নিতে আহ্বানও জানিয়েছি।

উল্লেখ্য, মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী এম কুলাসেগারানের ২২ ফেব্রুয়ারি ঢাকা এসেছেন। ২৪ ফেব্রুয়ারি দুই দেশের যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

ট্যাগ: bdnewshour24 পররাষ্ট্রমন্ত্রী