banglanewspaper

এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের দলবদল হবে আগের মত খোলামেলা। মাঝে যে ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজ’ প্রথা ছিল, এবার তা পাল্টে আবার সেই পুরোনো নিয়ম ও রীতি মেনে ‘ওপেন’ থাকবে দলবদল।

অর্থাৎ ক্লাবগুলো নিজেদের ইচ্ছেমত খেলোয়াড়দের দলে টানতে পারবে। ক্রিকেটাররাও ইচ্ছেমত দর হাঁকিয়ে দলবদল করতে পারবে। দুই পক্ষের কথা পাকাপাকি ও চূড়ান্ত রফা হবার পর খেলোয়্ড়দের দলে ভেড়ানো যাবে। অর্থাৎ ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের সেই রমরমা, আকর্ষণীয় ও উৎসাহ-উদ্দীপনার দলবদল হচ্ছে আবার।

ক্রিকেট কমিটি অফ ঢাকা মেট্রোপলিটনের সভা শেষে আজ রোববার বিকেলে সেই আনুষ্ঠানিক ঘোষণাই দিলেন সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম।

প্লেয়ার্স বাই চয়েজ পাল্টে আগের সেই খোলা দলবদলের পালায় অংশ নিলেও আগামী ৩, ৪ ও ৫ মার্চ ঢাকায় যে ক্লাব ক্রিকেটের দলবদল হবে, তাতে কিন্তু বর্তমান বা সর্বশেষ ওয়ানডে স্কোয়াডের ক্রিকেটাররা স্বশরীরে অংশ নিতে পারবেন না। কারণ, রাজধানী ঢাকায় যখন দলবদল চলবে, তখন জাতীয় দল ব্যস্ত থাকবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে।

দলবদল হবে ৩, ৪ ও ৫ মার্চ। আর সিলেটে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের খেলা হবে ১, ৩ ও ৬ মার্চ। তাহলে কি হবে? জাতীয় দলের যে ১৫ ক্রিকেটার থাকবেন, তারা কিভাবে দলবদল করবেন? তারা নতুন দলে যোগ দিলে কিভাবে দলবদলের প্রক্রিয়া সারবেন? সই করবেন কিভাবে? তবে কি অনলাইনে দলবদল করা যাবে?

খুব জানতে ইচ্ছে করছে, তাই না? তাহলে শুনুন, সিসিডিএম-এর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার মাশরাফি, তামিম, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহর মত তারকা ক্রিকেটাররা ঢাকার বাইরে সিলেটে থেকেই দলবদল করতে পারবেন।

সিসিডিএম চেয়ারম্যান জানিয়েছেন, দলবদল সিলেটেও হবে। জাতীয় ক্রিকেটাররা বিশেষ ব্যবস্থায় সিলেটে বসেই দলবদল করতে পারবেন।

বলার অপেক্ষা রাখে না, ওপরে যে চার শীর্ষ তারকার কথা বলা হলো, তারা সবাই এরই মধ্যে নতুন ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন। আবাহনী ছেড়ে মাশরাফির নতুন দল শেখ জামাল। মুশফিকুর রহীম খেলবেন আবাহনীতে। তামিম ইকবালের এবারের দল প্রাইম ব্যাংক। আর মাহমুদউল্লাহর নতুন ঠিকানা গাজী গ্রুপ। সিলেটে বসে তারা শুধু আনুষ্ঠানিকতা সারবেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 মাশরাফি মুশফিক