banglanewspaper

নড়াইল জেলা প্রতিনিধি: নড়াইলের লোহাগড়ায় সাংবাদিক কাজী আশরাফের উপর সন্ত্রাসী হামলা এবং তাঁকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অপরাধে তিন আসামীকে সমন দেন জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলি আদালত লোহাগড়া নড়াইল। সমন হাতে পেয়ে রবিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) আদালতের কাঠগড়ায় দাড়িয়ে জামিন আবেদন করেন ওই তিন আসামী।

আসামীরা হল লোহাগড়া পৌর এলাকার গোপীনাথপুর গ্রামের মৃত রাঙ্গা মিয়ার ছেলে আজিজুর রহমান (৪৯), আজিজুরের স্ত্রী নাছিমা বেগম (৪৪) এবং তার মেয়ে মুক্তা খানম (২৩)। সন্ত্রাসী হামলার স্বীকার কাজী আশরাফ এশিয়ান টিভির লোহাগড়া প্রতিনিধি ও লোহাগড়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, আসামীদের সাথে পূর্ব থেকেই জমাজমি সংক্রান্ত বিবাদ ছিল কাজী আশরাফ ও তাঁর পরিবারের। স্থানীয় ভাবে আজিজুর রহমান প্রভাবশালী হওয়ায় সামাজিক ভাবে বিবাদ নিরসনে ব্যার্থ হয়  কাজী আশরাফের পরিবার। পরে তাঁর পিতা কাজী সামছুর রহমান গত বছর ১৬ই জুন শেখ আজিজুর রহমানকে বিবাদী করে নড়াইল বিজ্ঞ যুগ্ম দায়রা জজ ২য় আদালতে মামলা করেন।

২০১৯ সালের ২৩ জুলাই কোর্ট হইতে মামলার নোটিশ হাতে পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে আজিজুর ও তাঁর পরিবার। ওই দিন যখন কাজী আশরাফ বাড়ি ফিরছিল তখন তাঁর গতি রোধ করে মারধর করে এবং মামলা তুলে না নিলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় আজিজুর রহমান ও তার পরিবার। পরে স্থানীয়রা সাংবাদিক আশরাফকে উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে নড়াইল সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করায়।

এ ঘটনায় লোহাগড়া থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হলে আদালতের অনুমতি নিয়ে তদন্ত করেন উপ-পরিদর্ষক শেখ মো: আজগর আলী। তদন্ত শেষে প্রাথমিক ভাবে ঘটনার সত্যতা পান তিনি। উল্লেখ্য: সাংবাদিক কাজী আশরাফ ১৯৯৭ সালে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হন। ওই সময় তার একটি পা কেটে ফেলতে বাধ্য হন জাতীয় অর্থপেডিক্স হাসপাতালের চিকিৎসকগন। পরে কাজী আশরাফ কৃত্রিম পা ব্যবহার করে চলা ফেরা করেন। 

এ বিষয়ে আজিজুর রহমানের সাথে একাধিক বার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। এদিকে দেশজুড়ে গণমাধ্যম কর্মীদের উপর নির্যাতন নিপিড়নের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন লোহাগড়া সাংবাদিক সমাজ। পাশাপাশি এশিয়ান টিভি প্রতিনিধি কাজী আশরাফের উপর সন্ত্রাসী হামলার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

ট্যাগ: bdnewshour24 আদালত সাংবাদিক হামলা তিন আসামী