banglanewspaper

কাজী আশরাফ, নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও লোহাগড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বদর খন্দকার (৪৫) দুর্বৃর্ত্তদের হামলায় নিহত হয়েছেন।  

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধা ৬টার দিকে উপজেলারটি-চর কালনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় কালনা-নড়াইল মহাসড়কের পাশে এ ঘটনা ঘটে। পরে রাত ৮টার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। এ দিকে হত্যা কান্ডের পর ২৪ ঘন্টা পার হয়ে গেলেও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কাউকে আটক করতে পারেনি।  

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বদর খন্দকার সোমবার সন্ধায় কালনা ঘাটের নিকট নিজের ইট ভাটা থেকে বাড়ি যাচ্ছিলেন। ওই এলাকর ৯৫নং টি-চর কালনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে পৌছালে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা এলোপাথারী ভাবে কুপিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। পরে তার অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। বিষয়টি এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে উপজেলা আওয়ামী লীগ নিশ্চিত করেছেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুন্সী আলাউদ্দিন স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে খুনিদের খুজে বের করে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবিসহ নিহতের শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা ও শান্তনা জানানো হয়েছে। 

নিহত বদর খন্দকার উপজেলার লোহাগড়ার কালনা গ্রামের মৃত ময়ের খন্দকারের ছেলে। তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত ছিলেন। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও একটি কন্যা সন্তান আছে। এলাকায় মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে শোকের ছায়া নেমে আসে।

পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করাকে কেন্দ্র করে পরিকল্পিত ভাবে এ হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়েছে। 

লোহাগড়া থানার উপ-পরিদর্শক মো. আতিকুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, এ ঘটনায় এখনও কেউ আটক হয়নি। তবে আমাদের অভিযান অব্যহত আছে। এ ছাড়া নড়াইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) টহল জোরদার করেছেন।

ময়না তদন্তের পর মঙ্গলবার বিকালে টি-চর কালনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে জানাজা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুন্সী আলাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মসিয়ূর রহমান, নড়াইল পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম, এশিয়ান টিভি প্রতিনিধি সাংবাদিক কাজী আশরাফসহ আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। 

এদিকে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সাভাবিক রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

ট্যাগ: bdnewshour24 নড়াইল