banglanewspaper

বর্তমানে ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

 
গত রবিবার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগ ও পুলিশের হামলায় ৪০ জন গুলিবিদ্ধসহ দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে গতকাল সন্ধ্যায় সিন্ডিকেটের সভা ডেকে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয় এবং আজ সকাল আটটার মধ্যে শিক্ষার্থীদের আবাসিক হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।


গতকালের ঘটনা তদন্তে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মো. খালেকুজ্জামানকে সভাপতি করে পাঁচ সদস্যে বিশিষ্ট একটি কমিটিও গঠন করা হয়।


মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুর নুর জানান, আজ ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। শিক্ষার্থীরা হল ছেড়ে চলে যাচ্ছেন।


উল্লেখ্য, বর্ধিত ফি প্রত্যাহার ও সন্ধ্যাকালীন মাস্টার্স কোর্স বন্ধের দাবিতে শিক্ষার্থীরা গত মঙ্গলবার থেকে বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করেন। দাবি আদায়ে বৃহস্পতিবার থেকে তাঁরা ক্যাম্পাসে ধর্মঘট শুরু করেন। আন্দোলনের মুখে শনিবার বর্ধিত ফি স্থগিত করার ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কিন্তু বর্ধিত ফি প্রত্যাহার এবং সন্ধ্যাকালীন কোর্স বাতিল না করায় আন্দোলন অব্যাহত রাখেন শিক্ষার্থীরা। এর মধ্যে গতকাল হামলার ঘটনা ঘটে।

ট্যাগ: